শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১

দূরপাল্লার বাস কি চলবে?

  •  
  •  
  •  
  •  

আন্তঃজেলা বাস সার্ভিস বন্ধ রয়েছে। বন্ধ রয়েছে লঞ্চ সার্ভিসও। কিন্তু এই দুটি গণপরিবহন চলাচলের অনুমতি দেওয়া হবে কিনা এ বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি সরকার। অথচ সব বাধা উপেক্ষা করে লাখ লাখ মানুষ ঢাকা ছেড়ে গ্রামে গেছেন নাড়ির টানে। ধারণা করা হচ্ছে জীবীকার প্রয়োজনে তারা একইভাবে রাজধানীতে আসবেন। এ নিয়ে উদ্বিগ্ন সরকারের নীতি-নির্ধারকরা। কিন্তু কিভাবে এই জনস্রোত ঠেকানো যায় তা নিয়ে নতুন কোনও নির্দেশনাও এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ জানিয়েছেন, আমরা এখনও পর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে কোনও সিদ্ধান্ত পাইনি। আশা করছি সরকার ইতিবাচক কোনও সিদ্ধান্ত দেবে। আমরা আবারও সরকারকে আশ্বস্ত করতে চাই, লাখ লাখ পরিবহন শ্রমিক ও মালিকদের কথা বিবেচনা করে সরকার যদি দূরপাল্লার গাড়ি চালানোর অনুমতি দেয় তাহলে আমরা স্বাস্থ্যবিধি শতভাগ নিশ্চিত করেই গাড়ি রাস্তায় নামাবো। দুই সিটে একজন যাত্রী বহন করবো। মাস্ক নিশ্চিত করবো। স্যানিটাইজারও নিশ্চিত করবো।

এদিকে করেনা সংক্রমণ ঠেকাতে বিদ্যমান শর্তে চলমান বিধিনিষেধের মেয়াদ আবারও ৭ দিন বাড়ানোর নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। প্রধানমন্ত্রীর সম্মতিও পাওয়া গেছে। বিদ্যমান শর্ত বলবত রেখে আগামী ২৩ মে রবিবার মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ বাড়ানো হচ্ছে। কাল রবিবার (১৬ মে) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করবে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, বিদ্যমান শর্তই বহাল থাকবে। তিনি আরও জানিয়েছেন, যেভাবে মানুষজন বাড়ি গেছে, তাতে ২১ মের পর থেকে করোনা সংক্রমণ বাড়বে তা অনেকটাই নিশ্চিত করে বলা যায়। আমরা এই জনস্রোত নিয়ে রীতিমতো উদ্বিগ্ন।

অপরদিকে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ঈদের আগের মতো ঈদের পরে কর্মস্থলে ফিরে আসার যাত্রায় বাঁধভাঙা জনস্রোতের আশঙ্কা করা হচ্ছে। তিনি বলেছেন, গাদাগাদি করে চলার কারণে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে। শনিবার (১৫ মে) সকালে তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব আশঙ্কার কথা জানান তিনি।

সরকারের পক্ষ থেকে এসব আশঙ্কার কথা জানালেও এই বিশাল পরিমাণের মানুষ কিভাবে রাজধানীতে ফিরবেন বা কিভাবে গাদাগাদি পরিস্থিতি ঠেকানো যায় তা নিয়ে কোনও সিদ্ধান্তই হয়নি বলে জানা গেছে।

বাংলা ট্রিবিউন:

 

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »

x