সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১

রোবোটিক খেলনার সাহায্যে শিশুদের ভাষা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশিক্ষণ

  •  
  •  
  •  
  •  

আজকাল বাজারে প্রচুর আকর্ষণীয় খেলনা রোবট একাধারে বাচ্চাদের বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশল এবং গণিত এই বিষয়গুলি অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে প্রশিক্ষণ দেওয়ার সাথে সাথে তাদেরকে যথেষ্ট আনন্দ দিচ্ছে, এমনকি বিনোদনের সঙ্গে সঙ্গে একটা ভাষাও তারা খুব সহজেই শিখে ফেলছে।এ বিষয়ে ভিওএর সংবাদদাতা জুলি তাবোহ তার এক প্রতিবেদনে জানাচ্ছেন যে, ৪ বছর বয়সী আভেলিন রয়বি নামক একটি খেলনা রোবটের সাথে কথা বলে শিক্ষা অর্জনের সময় একাধারে যেমন আনন্দ পাচ্ছে, অন্যদিকে তার ভাষার জ্ঞান এবং বিজ্ঞানের দক্ষতাও অনেক বাড়ছে।

আভেলিনের মা তাবিথা আর্নস্ট বলেন,“এটি যে শিক্ষা দিচ্ছে, যে বিষয়বস্তু এটি আমার মেয়েকে শেখাচ্ছে, সেটা তার বিকাশের জন্য খুব সহায়ক”। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় পরিচালিত এই রোবটটি ৩ থেকে ৭ বছর বয়সী শিশুদের প্রতিদিনের পড়াশোনা, কথোপকথন এবং গানের মাধ্যমে শিক্ষিত করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে।রায়বি গ্রাহক আভেলিন আর্নস্ট-মুরফে বলে, “আমি রায়বীকে ভালবাসি কারণ সে আমার কাছে গান করে এবং সে আমাকে গল্প বলতে ভালোবাসে।”

রায়বির রোবট সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এলনাজ সরফ বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা হল শিশুদের বিকাশের মূল বিষয়। তিনি আরও বলেন, “বিশ্বব্যাপী কমপক্ষে ২৫ কোটি শিশু ৫ বছর বয়সে তাদের পূর্ণ বিকাশ না হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে কারণ এক ধরণের শিক্ষা ব্যাবস্থা সবার জন্য উপযুক্ত নাও হতে পারে; অনেকেই যথেষ্ট ব্যক্তিগত মনোযোগ পায় না”। রোবোটিক খেলনা কিন্ত একটি শিশুর বেড়ে ওঠার সাথে তার যে বিষয়গুলিতে বিশেষ মনোযোগের দরকার, সেগুলি সম্পর্কে শিক্ষা দিয়ে থাকে।

চীনে অবস্থিত রোবসিন রোবোটিকস সংস্থার যুক্তরাষ্ট্র শাখার মহাকর্মাধ্যক্ষ জন ওয়াং বলেন, “আমরা আজকাল যে যুগে বাস করছি সেখানে সবকিছু স্বয়ংক্রিয় হয়ে উঠছে। এবং আমরা চাই শিশুরা স্টেম (STEM- Science, technology, engineering, and mathematics) অর্থাৎ বিজ্ঞান, প্রযুক্তি,প্রকৌশল এবং গণিত এই বিষয়গুলির শিক্ষায় অনেক এগিয়ে থাকুক। এটাই তাদের ভবিষ্যৎ।”

জন ওয়াংয়ের সংস্থা বিজ্ঞান শিক্ষার প্রচারের জন্য ভয়েস কমান্ডের সাথে পুরোপুরি প্রোগ্রাম করা যাবে এরকম রোবোটিক খেলনা তৈরি করছে। জন ওয়াং আরও বলেন, “আমরা বিশ্বাস করি যে ভবিষ্যতে আমাদের শিশুদের শিক্ষিত হতে হলে তাদেরকে স্টেম শিক্ষার বিষয়গুলিতে যথেষ্ট আগ্রহী হতে হবে, এবং রোবসিন রোবোটিকের সাথে সেই শিক্ষা দিয়ে তাদের কাছে এগুলিকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলছে।”

আভেলিনের মা তাবিথা আর্নস্ট আরও বলেন, “আমি রায়বি রোবটকে অনেক ভালোবাসি, এতটাই ভালবাসি যে আমার দ্বিতীয় সন্তানের যে খুব শীঘ্রই পৃথিবীতে আসছে, তার জন্যও আমি এটি কিনে রেখেছি।” অল্পবয়সী আভেলিন এবং তার বোনের জন্য রোবোটিক খেলনা অনেক আশাব্যঞ্জক ধারণা নিয়ে আসছে।

সুত্র: ভয়েস অফ আমেরিকা

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »

x