ঝালকাঠিতে গৃহবধুকে হত্যার দায়ে একজনের যাবজ্জীবন


দৈনিক সিরাজগঞ্জ ডেস্ক প্রকাশের সময় : জুলাই ২৮, ২০২৩, ১:৪৪ অপরাহ্ন / ০ Views
ঝালকাঠিতে গৃহবধুকে হত্যার দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধি :ঝালকাঠিতে গৃহবধূ হত্যা মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। জেলার কাঠালিয়া উপজেলার আওরাবুনিয়া গ্রামে ২০১৪ সালে এক গৃহবধুকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে মোজাম্মেল বিশ্বাস (৫০) নামে একজনকে এ দন্ডাদেশ দিয়েছে আদালত।

গত বৃহস্পতিবার ( ২৭ জুলাই) দুপুরে ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচাররক মোঃ মাসুদুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে মোজাম্মেলের ছোট ভাই আঃ হক বিশ্বাসকে খালাশ প্রদান করা হয়। অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর আ.স.ম মোস্তাফিজুর রহমান মনু এ রায়ের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আদালত এবং মামলার নথি সূত্রে জানা যায়, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে ২০১৪ সালের ২৬ নভেম্বর বিকেলে জেলার কাঠালিয়া উপজেলাধীন আওরাবুনিয়া গ্রামের মোজাম্মেল বিশ্বাস, তার ছেলে সজিব বিশ্বাস, ভাই আব্দুল হক বিশ্বাস সহ ৬ জন মিলে প্রতিবেশী আব্দুল মান্নান হাওলাদারের ঘরে ঢুকে তার স্ত্রী রেহেনা বেগম(৩২)কে ঘরে একা পেয়ে কুপিয়ে হত্যা করে।

ঘটনার পরেরদিন ২৭ নভেম্বর আব্দুল মান্নান বাদী হয়ে মোজাম্মেল বিশ্বাস, তার ছোট ভাই আঃ হক বিশ্বাস, নুরুল হক বিশ্বাস, ছেলে সজিব বিশ্বাস, স্ত্রী মাসুমা বেগম ও নান্না সিকদারসহ মোট ৫ জনকে আসামি করে কাঠালিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ১৬ জুন সিআইডি ঝালকাঠি ক্যাম্পের পরিদর্শক শেখ আবুল খায়ের ৬ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আসামী সজিব বিশ্বাসের বয়স ১৬ বছর হওয়ায় তার নামে শিশু অপরাধ আইনে আলাদা দোষীপত্র দাখিল করা হয়।

মামলাটি আদালতে বিচারে এলে মোজাম্মেল বিশ্বাস, তার ভাই আব্দুল হক এবং ছেলে সজিব বিশ্বাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয় এবং তিনজনকে অভিযোগের দায় থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। শিশু আসামী সজিবের বিচারের জন্য দোষীপত্র শিশু আদালতে পাঠানো হয়। অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত ২৪ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করে মোজাম্মেল বিশ্বাসকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং আঃ হক বিশ্বাসকে খালাশ প্রদান করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর আ.স.ম মোস্তাফিজুর রহমান মনু। আসামী পক্ষে ছিলেন এডভোকেট আবদুল্লাহ আল-আমিন পলাশ। শিশু সজিবের মামলায় রায় আগামী ৩০ জুলাই রায় ঘোষণা করা হবে শিশু আদালতে ।