রোগী ও স্বজনদের মোবাইল মুহূর্তেই হাওয়া করে দেন তারা


দৈনিক সিরাজগঞ্জ ডেস্ক প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৪, ২০২৩, ৭:১৮ অপরাহ্ন /
রোগী ও স্বজনদের মোবাইল মুহূর্তেই হাওয়া করে দেন তারা

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বহির্বিভাগ থেকে মোবাইল চোর চক্রের ৪ নারী সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে চুরি যাওয়া পাঁচটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার(১৪ নভেম্বর) দুপুরে হাসপাতালের বহির্বিভাগ থেকে তাদের আটক করা হয়। আটক হওয়া অভিযুক্তরা হলেন, হাসিনা বেগম (২১), সুমাইয়া (২২), তানিশা (২৪) ও বিথী (২৩)।

ভুক্তভোগী তানজিলা ইসলাম বলেন, আমি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসেছিলাম। বহির্বিভাগ থেকে মুহূর্তেই আমার মোবাইলটি নিয়ে হাওয়া হয়ে যায় নারী চক্রের এক সদস্য। পরে ওই নারী চক্রের চারজনকে আটক করে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে পাঁচটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে আমার মোবাইলটিও রয়েছে।

ঢামেকের বহির্বিভাগের চিকিৎসা নিতে আসা সালমা বেগম বলেন, আমি বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিতে আসি। আমি বাচ্চাকে নিয়ে বেঞ্চে বসে ছিলাম। কিছুক্ষণ পরে এসে আমার পাশে এসে বসে একজন। পরে আমার বাচ্চা কান্না করলে আমি তাকে নিয়ে উঠে হাঁটাহাঁটি করি। এরপর দেখি আমার মোবাইল নেই। কিছুক্ষণ পরে দেখি ওই নারীকে স্টাফ ও আনসার সদস্যরা ধরে নিয়ে এসেছে। চুরি যাওয়া মোবাইলটিও চোরের কাছে পাওয়া যায়।

মোবাইল চুরি যাওয়া ডা. মাশকুরা জাহান ও ডা. সুমি আক্তার বলেন, আমরা দুজনেই ঢাকা মেডিকেলের চিকিৎসক। বহির্বিভাগের গাইনি ওয়ার্ডের সামনে থেকে আমাদের দুজনের মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। চারজন নারীকে আটক হয়েছে শুনে আমরা আমাদের মোবাইলের জন্য পরিচালকের রুমে এসেছি।

ঢামেক হাসপাতালের সিসিটিভি ক্যামেরা পর্যবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা উজ্জ্বল বলেন, প্রতিনিয়তই ঢাকা মেডিকেল থেকে মোবাইল ফোন চুরি হয়। আজকে আমরা মোবাইল নেওয়ার সময় ক্যামেরায় দেখে এক নারীকে শনাক্ত করি। পরে আনসার সদস্যদের মাধ্যমে তাকে আটক করি এবং তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে চক্রের বাকি তিন নারী সদস্যকে আটক করা হয়। এ সময়ে চুরি যাওয়া পাঁচটি মোবাইল তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, আজকে বহির্বিভাগ থেকে প্রায় ১০ থেকে ১৫ জনের মোবাইল চুরি হয়েছে গেছে। পাঁচটি মোবাইল তাদের কাছে পাওয়া গেলেও বাকিগুলো পাওয়া যায়নি।

জানতে চাইলে ঢামেক হাসপাতালের আনসারের প্লাটুন কমান্ডার (পিসি) উজ্জ্বল বেপারী বলেন, রাজধানীসহ সারাদেশ থেকে প্রতিনিয়ত হাজার হাজার রোগী ঢাকা মেডিকেলের চিকিৎসা নিতে আসেন। রোগীদের কাছ থেকে মুহূর্তের মধ্যেই মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যেত প্রতারক চক্রের সদস্যরা। তাদের শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আজকে ডাক্তারসহ চিকিৎসা নিতে আসা বেশ কয়েকজনের মোবাইল ফোন চুরি হয়। তবে তাদের কাছ থেকে চারটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন ও একটি স্যামসাং বাটন ফোন উদ্ধার করা হয়। আমাদের ধারণা এই চারজন ছাড়াও চক্রের সঙ্গে আরও অনেকেই জড়িত।

শাহবাগ থানার উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঢাকা মেডিকেলে গিয়ে চোর চক্রের চার নারী সদস্যকে থানায় নিয়ে এসেছি। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া পাঁচটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। আমাদের কাছে অনেকেই অভিযোগ করেছেন আজকে তাদের বেশ কয়েকটি মোবাইল ফোন চুরি হয়েছে। তবে পাঁচটি উদ্ধার হলেও বাকি মোবাইলগুলো উদ্ধার হয়নি। আটক চার নারীকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।